ভ্রমণবন্ধু

মমিন মসজিদ, শতবর্ষী এক পুরাকীর্তি - Hosted By

Not review yet
4
Add Review Viewed - 292

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি পিরোজপুর জেলা। বৈচিত্র্যে ভরা এই পিরোজপুর জেলার একদিকে মিঠা পানি, আর অপরদিকে লবণাক্ত পানির অবস্থান। এই জেলায় বেশ কিছু পুরাকীর্তি স্থাপনাও রয়েছে। এসব স্থাপনা ভ্রমণপ্রিয় মানুষদের বেশ আকৃষ্ট করে। তেমনই একটি পুরাকীর্তি স্থাপনা মঠবাড়িয়ার ‘মমিন মসজিদ’। বিচিত্র কারুকাজখচিত সম্পূর্ণ কাঠ দিয়ে তৈরি এই মসজিদ স্থানীয়ভাবে ‘কাঠ মসজিদ’ নামেও পরিচিত।

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার উদয়তারা বুড়িরচর গ্রামের মৌলভী মমিন উদ্দিন আকন ঊনবিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে মসজিদটি নির্মাণ করেন। সম্পূর্ণ নিজস্ব শৈল্পিক ভাবনা ও অভিজ্ঞতা দিয়ে তিনি মসজিদটি তৈরি করেন, যা শিল্পকর্মের অপূর্ব নিদর্শন হিসেবে রয়ে গেছে আজও।

শতবর্ষী পুরাকীর্তি মমিন মসজিদটি দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র কাঠের তৈরি শিল্পসমৃদ্ধ দৃষ্টিনন্দন মুসলিম স্থাপত্যকলা। ইতিহাস থেকে জানা যায়, ১৯১৩ সালে মঠবাড়িয়ার বুড়িরচর গ্রামের মমিন উদ্দিন আকন নিজ বাড়িতে এই মসজিদের নির্মাণ কাজ শুরু করেন। মসজিদটি নির্মাণে কাজ করেন ২১ জন কাঠ-খোদাই মিস্ত্রি। এর কাজ শেষ হতে সময় লাগে সাত বছর। মমিন মসজিদ তৈরিতে ব্যবহার করা হয় শাল, সেগুন ও লোহাকাঠ। সম্পূর্ণ কাঠের তৈরি কারুকার্য ও ক্যালিগ্রাফি খচিত এই মসজিদটিতে কোনো ধরনের লোহা বা তারকাঁটা ব্যবহার করা হয়নি। এসব কারুকাজে ব্যবহার করা হয়েছে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক রং।

২০০৩ সালে বাংলাদেশ সরকারের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ এটিকে সংরক্ষিত পুরাকীর্তি ঘোষণা দিয়ে এর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নেয়। ২০০৮ সালে মসজিদটির সংস্কার কাজ করা হয়। এ সময় লোহার ব্যবহারসহ মূল ডিজাইনের বেশ কিছু পরিবর্তন করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। উল্লেখ্য, এ ধরনের কাঠের তৈরি মসজিদ একসময় ভারতের কাশ্মীরেও একটি ছিল; কিন্তু ১৮৮৫ সালের ভূমিকম্পে সেটি ধ্বংসপ্রাপ্ত হলে মঠবাড়িয়ার মমিন মসজিদই এ ধরনের একমাত্র নিদর্শণে পরিণত হয়।

বৃষ্টির পানির কারণে এবং যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে মসজিদটির কারুকাজ ও রংয়ের ক্ষতি হতে থাকে। এ সময় মমিন আকনের নাতি মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় মসজিদটির প্রত্নতাত্ত্বিক মূল্য এবং রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে লেখালেখি করতে থাকেন। এ সময় তিনি ‘মমিন মসজিদ : স্মৃতি বিস্মৃতির খাতা’ নামে একটি বইও রচনা করেন। যার ফলে ২০০৩ সালে সরকারের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ এটিকে সংরক্ষিত পুরাকীর্তি ঘোষণা করে।

Listing Features

Tags

Add Reviews & Rate

You must be logged in to post a comment.

Sign In ভ্রমণবন্ধু

For faster login or register use your social account.

or

Account details will be confirmed via email.

Reset Your Password