ভ্রমণবন্ধু

ফুকেটের যেসব রেস্টুরেন্টে পাবেন অথেনটিক থাই ফুড - Hosted By

Not review yet
2
Add Review Viewed - 183

ভোজন রসিক মানুষ সব ধরণের খাবার খেতেই ভালোবাসে। হোক সেটা দেশি বা বিদেশি খাবার। এখন নিজ দেশে বসেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশের খাবারের স্বাদ নেয়া যায়।

তবে যে কোনো দেশের ঐতিহ্যবাহী ও মজাদার খাবার সেই দেশে গিয়ে খাওয়ার মজাই আলাদা। তাই থাইল্যান্ডের পপুলার ডেস্টিনেসন ফুকেট ভ্রমণে গেলে কোন কোন রেস্টুরেন্টে অথেনটিক থাই ফুড পাবেন সেগুলো সম্পর্কে আগে থেকে জেনে নেয়া ভালো। জিনাত আরেফিন তানহা‘র লেখায় জেনে নিন ফুকেটের অথেনটিক থাই ফুড পাওয়া যায় এমন কিছু রেস্টুরেন্টের নাম।

তাতোংকা রেস্টুরেন্ট (Tatonka):
বন্ধুবান্ধব কিংবা পরিবারের সবাইকে নিয়ে এখানে খেতে পারেন। এটি ব্যাং তাও বীচের পাশেই অবস্থিত। খুব সুন্দর পরিবেশ এবং খাবারও মজার। বাচ্চাদের জন্যও অনেক মজার খাবারের ব্যবস্থা আছে। কাছাকাছি কোথাও থাকলে তাতোংকায় কল করলেই পেয়ে যাবনে ফ্রি পরিবহন।

তাওয়াই থাই রেস্টুরেন্ট (Tawai Thai):
ঐতিহ্যবাহী থাই খাবার খেতে চাইলে এখানে চলে যাবেন। বিশেষ করে স্যুপ আইটেমগুলো অসাধারণ। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো এখানকার লোকজনের আচরণ ভালো। অতি যত্ন সহকারে খাবার পরিবেশন করবে। তারা অত্যন্ত ফ্রেশ খাবার রাখে।

হার্ড রক ক্যাফে (Hard Rock):
পাতং বীচের মাঝামাঝি এলে পাবেন এই দোতলা রেস্টুরেন্ট। এখানে ওয়েস্টার্ন এবং ইস্টার্ন সব খাবার খেতে পারবেন। পাশাপাশি উপভোগ করতে এই দুই ধাচের লাইভ ব্যান্ড মিউজিকও উপভোগ করতে পারবেন।

অজি বার (Aussie Bar) :
এটি একটি বার ও ক্লাব। অস্ট্রেলিয়ান খাবারের পাশাপাশি এখানে পাবেন তাদের ঐতিহ্যবাহী পানীয়, পার্টি উপভোগের সুযোগ। প্রচুর অস্ট্রেলিয়ান পর্যটক এখানে আসেন। জমজমাট আয়োজনের মাধ্যমে এখানে পর্যটকদের মাতিয়ে রাখা হয়। যেহেতু বার এবং ক্লাব, সেহেতু ছোটদের এখানে না আনাই ভালো। অস্ট্রেলিয়ান খাবারের সাথে এখানে থাই খাবারো বেশ ভালো। ফ্রি ওয়াইফাই এর বসুবিধা তো আছেই। তবে খুব সাবধানতার সাথে টেবিলে বসবেন যেন আপনার হাতে ভুলে চাপ লেগে বেল না বেজে উঠে। বেল বাজানো মানে বুঝতে হবে আপনি তাদেরকে বিয়ার অর্ডার করেছেন।

ল্যুজিয়্যন (Illuzion) :
আপনি ক্লাব ও ডিসকো পছন্দ করে থাকলে এখানে যেতে পারেন। বাংলা রোডেই এটি পেয়ে যাবেন। এর বাইরে অনেকেই ফ্রি এনট্রি পাস দিয়ে থাকেন। খুঁজলে আপনিও পেয়ে যাবেন। ঢুকেই মনে হবে ডান্স ফ্লোর আপনার। সাথে চাইলে পাবেন পছন্দমতো পানীয়। ভেতরে তিনটি হলরুম। চলে হিপিহপ মিউজিক, রয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ডি জে, আন্ডারগ্রাউন্ড সেট। ৫ হাজার মানুষ একসাথে দাঁড়িয়ে মিউজিক উপভোগ করতে পারে এখানে। সাথে রয়েছে ৩০০ ভি আই পি টেবিল। রাত ১২টার পর শুরু হয় আসল নাইট ক্লাব।

দ্য বোটহাউজ রেস্টুরেন্ট (The Boathouse Restaurant):
ফুকেটে এসে ককটেল বানিয়ে খাবেন না তা তো হয় না। এর জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত জায়গা এটি। এখানে ককটেল বানানোর একটা ওয়ার্কশপ আছে। একফাঁকে এসে তাও সেরে নিতে পারেন। এমনকি চালং বে তেও এই ওয়ার্কশপের ব্যবস্থা আছে। জনপ্রিয় এই রেস্টুরেন্টটি একটি বোটে সাজানো, সাথে পাচ্ছেন সমুদ্রের অসাধারণ দৃশ্য। অত্যন্ত সুস্বাদু ও ফ্রেশ ককটেল পাবেন এখানে।

নাকা মার্কেট (Naka Market):
মুখরোচক খাবারে ভর্তি এই স্ট্রিটফুড। যারা ভোজন রসিক এবং কিছুটা সস্তায় পেটপুরে খেতে চান, চলে যাবেন এই জায়গায়। থাই খাবার তো আছেই সাথে আছে আমেরিকান স্তাইল ফ্রাইড চিকেন, ফ্রেশ সামুদ্রিক মাছ এবং মাংসের বার-বি-কিউ। এছাড়াও রয়েছে তাজা ফলের জুস, মিষ্টি খাবার, জনপ্রিয় কোকোনাট আইসক্রিম। স্পাইসি খাবারগুলো খেতে কখনো ভুলবেন না।

Tags

Add Reviews & Rate

You must be logged in to post a comment.

Sign In ভ্রমণবন্ধু

For faster login or register use your social account.

or

Account details will be confirmed via email.

Reset Your Password