ভ্রমণবন্ধু

পটল ভর্তা; তিন রকম ভাবে বানানো রেসিপি - Hosted By

Not review yet
3
Add Review Viewed - 136

পটল বাংলাদেশের খুুবই কমন একটি সবজি, পটল দিয়ে বানানো যায় নানান রকম দেশি খাবার। জীবনে একবারও পটল ভর্তা খায়নি এমন মানুষ দেশে পাওয়া গেলে অবাক হওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় থাকবে না।

পটল ভর্তা, পটলের দোলমা, পোস্ত পটল, পটল ভাজি, পটল দিয়ে মাছের ঝোল, আরো নানা পদ রান্না করা যায় এই সবজি দিয়ে। আর সব পদই খেতে বেশ মজার হয়। আজ জানাবো পটল ভর্তার মজাদার তিনটি রেসিপি।

উপকরণ:

পটল
আলু
পেঁয়াজ কুচি
কাঁচামরিচ কুচি
শুকনা মরিচ
হলুদ গুঁড়া
লবণ
সরিষার তেল
সয়াবিন তেল

প্রস্তুত প্রণালি-১:

শুধু পটল পানিতে সেদ্ধ করে নিন। ভালোভাবে সিদ্ধ হলে পটল নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। ঠাণ্ডা হলে পটল চিপে অতিরিক্ত পানি ফেলে দিন। এবার কাঁচামরিচ, পোঁয়াজ কুচি, পরিমাণমতো লবণ দিয়ে চটকে নিন। এবার সরিষার তেল দিয়ে পটল ভালো করে ভর্তা করুন। গরম ভাতের সঙ্গে ভর্তাটি খেতে মজা লাগে।

প্রস্তুত প্রণালি-২:

একটি পাত্রে পটল ও খোসা ছাড়ানো আলু সিদ্ধ করে নিন। ভালোভাবে সিদ্ধ হলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে পটল চিপে অতিরিক্ত পানি ফেলে দিন। এবার কাঁচামরিচ, পোঁয়াজ কুচি, পরিমাণমতো লবণ ও সরিষার তেল দিয়ে চটকে নিয়ে তাতে আলু ও পটল দিয়ে ভর্তা করুন।

প্রস্তুত প্রণালি-৩:

একটি পাত্রে সয়াবিন তেল দিয়ে সামন্য গরম করে নিন। এবার এতে শুকনা মরিচ ও পেঁয়াজ কুচি ভেজে তুলে রাখুন। ওই তেলে লবণ ও হলুদ গুঁড়া দিয়ে ফালি করে কাটা পটল দিয়ে দিন। কিছুক্ষণ নেড়ে ঢেকে দিন। পটলের দুই পাশ লাল হওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন। এতে পানি দেয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। কারণ পটল থেকেই অনেক পানি বের হয়। পটল ভাজা হয়ে গেলে নামিয়ে শিল পাটায় বেটে নিন। চাইলে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিতে পারেন।

এবার ভেজে রাখা পেঁয়াজ, শুকনা মরিচ, লবণ ও সরিষার তেল দিয়ে চটকে তাতে বেটে রাখা পটলের মিশ্রণ মিশিয়ে নিন। ব্যাস হয়ে গেল মজাদার একটি ভর্তা। একটু ঝামেলার হলেও ভর্তাটি কিন্তু খুবই লোভনীয়। সবসময় একরকমের ভর্তা না খেয়ে এভাবে মাঝেমধ্যে একটু ভিন্নতা আনতে পারেন।

জেনে নিন:

পটল একটি পুষ্টিকর খাদ্য। এতে রয়েছে ভিটামিন এ, ভিটামিন বি-১, ভিটামিন বি-২ ও ভিটামিনসি, ক্যালসিয়াম ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। পটল ও এর বিচিতে রয়েছে অগণিত স্বাস্থ্য উপকারিতা। পটল হজম ও ওজন কমতে সাহায্য করে, রক্ত পরিষ্কার করে, কোলেস্টেরল ও ব্লাড সুগার কমায়।

আয়ুর্বেদী চিকিৎসায় ঠাণ্ডা, জ্বর ও গলা ব্যথা কমতে ওষুধ হিসেবে পটল ব্যবহার করা হয়। পটলের বিচিও স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। এটি কোষ্ঠকাঠিন্য নিরাময়ে এবং মল নির্গমনে সাহায্য করে।

রেসিপি: সোহানা লিটা

Tags

Promo Video

Add Reviews & Rate

You must be logged in to post a comment.

Sign In ভ্রমণবন্ধু

For faster login or register use your social account.

or

Account details will be confirmed via email.

Reset Your Password