ভ্রমণবন্ধু

কুরআন ভাস্কর্য - Hosted By

Not review yet
3
Add Review Viewed - 228

ব্রাহ্মণবাড়িয়া চট্টগ্রাম বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল। এ জেলা আজও আমাদের সংস্কৃতিকে পরম যত্নে লালন করে আসছে। তারই প্রমাণ মেলে ‘কুরআন ভাস্কর্য’ থেকে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলা সদরের ব্যস্ততম কদমতলা মোড়ে তৈরি করা হয়েছে দেশের প্রথম কুরআন ভাস্কর্য। সৌদি আরবের জেদ্দা বিমানবন্দর থেকে নেমে পবিত্র নগরী মক্কার প্রবেশদ্বারে যে কুরআনের বিশাল ভাস্কর্য রয়েছে, সেই ভাস্কর্যের ডিজাইনের আলোকেই তৈরি হয়েছে এটি।

নান্দনিক এই ভাস্কর্যটি নির্মিত হয় ২০১৭ সালে। ভাস্কর্যের উচ্চতা ১৬ ফুট এবং প্রস্থ ৮ ফুট। ভাস্কর্য নির্মাণে ব্যবহার করা হয়েছে উন্নমানের ফাইবার গ্লাস। আর খরচ পড়েছে দুই লাখ টাকার কিছু বেশি।

ভাস্কর্যটি তৈরি করেছেন ঢাকার চারুকলা ইনস্টিটিউটের ছাত্র ভাস্কর কামরুল হাসান শিপন। কসবা পৌরসভার মেয়র এমরানুদ্দীন জুয়েলের তত্ত্বাবধানে ভাস্কর্যটি নির্মাণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশের প্রথম কুরআনের ভাস্কর্যটি দেখতে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ভিড় করে স্থানীয় ও দেশের দূর-দূরান্ত থেকে আগত মানুষ। কুরআনের আদলে তৈরি এ ভাস্কর্যটি সাধারন মানুষের কাছে খুবই পছন্দের। ব্যতিক্রমধর্মী এই ভাস্কর্য নির্মাণ সংশ্লিষ্টরা সব মানুষের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। দেশের আলেম সমাজও তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। পাশিপাশি এই ভাস্কর্যটি যেন কোনোভাবেই অবহেলিত না হয় সেদিকে লক্ষ রাখার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

যেভাবে যাবেন:

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সাথে অন্যান্য জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা খুবই ভালো। এখানে রয়েছে দুটি হাইওয়ে রাস্তা। রয়েছে রেল ও নৌ যোগাযোগ ব্যবস্থা। বাসে গেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সায়েদাবাদ নামক স্থানে নেমে অটোরিক্সায় করে যেতে পারবেন কসবা। আর ট্রেনে গেলে কসবাতেই নামতে পারবেন। সেখানে নেমে অটোরিক্সা নিতে পারেন। চালককে বললে সেই আপনাকে নিয়ে যাবে কুরআন ভাস্কর্যর কাছে।

Listing Features

Tags

Add Reviews & Rate

You must be logged in to post a comment.

Sign In ভ্রমণবন্ধু

For faster login or register use your social account.

or

Account details will be confirmed via email.

Reset Your Password