ভ্রমণবন্ধু

আলুটিলা গুহা; ব্যতিক্রমধর্মী পর্যটন স্পট - Hosted By

Not review yet
4
Add Review Viewed - 239

স্বর্গীয় সৌন্দর্য্যের খাগড়াছড়ি শহরের প্রবেশ পথেই চোখে পড়বে আলুটিলা পর্যটন কেন্দ্র। আলুটিলা বাংলাদেশের একটি অন্যতম ব্যতিক্রমধর্মী পর্যটন স্পট। পাহাড়ি মনোরম পরিবেশে অবস্থিত হওয়ায় গুহাটিতে প্রবেশের আগেই এর আশপাশের মনোরম পরিবেশ আপনার মনকে আনন্দে ভরিয়ে তুলবে।

খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলায় মূল শহর হতে ৭ কিলোমিটার পশ্চিমে সমুদ্র সমতল হতে ৩০০০ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট আলুটিলা বা আরবারী পাহাড়ে আলুটিলা গুহা অবস্থিত। স্থানীয়রা একে বলে মাতাই হাকড় বা দেবতার গুহা।

পাহাড়ের ভেতরে এই গুহা যেকোনো ভ্রমণপ্রেমীকে আনন্দ দিতে পারে। গুহাটির চারপাশে রয়েছে ঘন সবুজের অরণ্য। গুহাটি ভেতর ১০০ মিটার দীর্ঘ, ১.৮ মিটার উঁচু এবং ০.৯ মিটার প্রশস্ত। পুরো গুহাটি অন্ধকার ও শীতল।

গুহাটির একপাশ দিয়ে প্রবেশ করে অন্যপাশে দিয়ে বের হতে সময় লাগতে পারে ১০ থেকে ১৫ মিনিট। আগে পাহাড়ের ঢাল বেঁয়ে নামতে হতো গুহামুখে। কিন্তু এখন পর্যটন কর্পোরেশন একটি পাকা রাস্তা করে দিয়েছে। ফলে খুব সহজেই হেঁটে যাওয়া যায় গুহামুখে।

পাকা রাস্তা শেষ হলে সিঁড়ি বেয়ে নিচে নামতে হবে। প্রায় ৩৫০টি সিঁড়ি বেয়ে নামলে পাওয়া যাবে কাঙ্ক্ষিত সেই গুহা। কোনো প্রকার সূর্যের আলো প্রবেশ করে না বলে মশাল নিয়ে ভিতরে প্রবেশ করতে হয়। সুড়ঙ্গের তলদেশ পিচ্ছিল এবং পাথুরে। এছাড়া এর তলদেশে একটি ঝর্ণা প্রবাহমান। গুহাটি দেখতে অনেকটা ভূ-গর্ভস্থ টানেলের মত। গুহাটির উচ্চতা মাঝে মাঝে খুব কম হওয়ায় নতজানু হয়ে হেটে যেতে হয়।

যেভাবে যাবেন:

গুহাটি দেখতে হলে প্রথমে যেতে হবে খাগড়াছড়ি সদরে। ঢাকা থেকে শান্তি পরিবহন, শ্যামলী, হানিফ, সৌদিয়া, রিফাতসহ অসংখ্য বাস প্রতিদিন খাগড়াছড়ি যাতায়াত করে। রাত ১০টা বা তার পরের বাসে রওয়ানা দিলে পরদিন ভোর ৬টার মধ্যে খাগড়াছড়ি পৌঁছে যাবেন। সেখানে সকালের নাশতা সেরে ঘূরে দেখতে পারবেন দর্শনীয় স্থানটি।

শান্তি পরিবহনের বাসস্ট্যান্ড থেকে অথবা শাপলা মোড় থেকে আলুটিলা যাওয়ার অনেক গাড়ি পাওয়া যায়। তবে সব ধরনের গাড়ি পাহাড়ি রাস্তা বেয়ে ওপরে উঠতে পারে না। সেখানে একধরনের অটোজাতীয় গাড়ি পাওয়া যায়, যেগুলোতে চড়ে সহজেই চলে যেতে পারবেন আলুটিলা গুহায়। গুহাটি এবং তার চারপাশ দেখতে প্রবেশ গেটে আপনাকে টিকেট কাটতে হবে।

Listing Features

Tags

Add Reviews & Rate

You must be logged in to post a comment.

Sign In ভ্রমণবন্ধু

For faster login or register use your social account.

or

Account details will be confirmed via email.

Reset Your Password