ভ্রমণবন্ধু

আখনি পোলাও, সিলেটের ঐতিহ্যবাহী খাবার - Hosted By

Not review yet
2
Add Review Viewed - 150

সিলেটের জনপ্রিয় খাবারগুলোর মধ্যে যেটি ব্যাপক জনপ্রিয়, সেটি হলো আখনি পোলাও। এই খাবারটির কথা আমরা প্রায় সবাই জানি। এই খাবারটির কদর পবিত্র রমজান মাস এলেই যেন আরো বেশি বেড়ে যায়।

আমাদের দেশে ইফতারিতে ছোলা-মুড়ি যেমনটা আবশ্যক, সিলেটিদের কাছে তেমনি আখনি পোলাও আবশ্যক। আখনি কিংবা খিচুড়ি ছাড়া ইফতারের কথা সিলেটিরা ভাবতেই পারে না।

আখনিতে ছোলার মিশ্রণও একটা ঐতিহ্য, বিশেষ করে খিচুড়িতে। এই মিশ্রণ দুই রকম হয়ে থাকে। কেউ কেউ রান্নার সময়ই খিচুড়িতে ছোলা মিশিয়ে দেয়। আবার অনেকে ছোলা আলাদাভাবে ভেজে রাখে, যা খিচুড়ি কিংবা আখনির সঙ্গে আলাদাভাবে পরিবেশন করা হয়।

এই খাবারটিকে যে শুধু আখনি নামেই ডাকা হয় তা নয়। এটা আসলে একধরনের বিরিয়ানি বা খিচুড়ি। কাজেই একে আখনি বিরিয়ানি বা আখনি খিচুড়ি নামেও ডাকা হয়। তবে আকনি বিরিয়ানিটাই বেশি প্রচলিত। অনেকেই হয়তো এই খাবারটি খায়নি। তবে ইচ্ছে করলেই বাড়িতেই রেধে খাওয়া যাবে এই আখনি বিরিয়ানি। আর যারা নিজ ঘরে বসেই সিলেটের জনপ্রিয় এই খাবারটির স্বাদ নিতে চায় তাদের জন্য আজ আমরা জানবো ঐতিহ্যবাহী এই খাবারটির রেসিপি:

রন্ধন প্রণালি:

এক কেজি পরিমাণ পোলাওয়ের চাল ও সমপরিমাণ গরুর মাংস নিতে হবে। প্রথমে গরুর মাংস রান্না করতে হবে। এক কেজি গরুর মাংসের জন্যে মসলাপাতির আলাদা প্রস্তুতি রাখতে হবে। প্রস্তুত রাখুন আদা বাটা এক টেবিল চামচ, রসুন বাটা এক চা চামচ, জিরা বাটা এক চা-চামচ এবং ধনে বাটা এক চা চামচ। আরো লাগবে মরিচ গুঁড়া ২চা চামচ, হলুদ গুঁড়া এক চা চামচ, গোলমরিচ আধা চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি এক কাপ, লবণ প্রয়োজন মতো, জায়ফল-জয়ত্রী আধা চা চামচ, মেথি ও মৌরি বাটা আধা চা চামচ, গরম মসলা বাটা আধা চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ, বাদাম বাটা এক টেবিল চামচ এবং তেজপাতা ৩-৪টা।

এবার পোলাওয়ের জন্য আলাদাভাবে উপকরণ প্রস্তুত করুন। আপনার লাগবে সেদ্ধ চাল এক কেজি, লবণ পরিমাণ মতো, মরিচ গুঁড়া এক টেবিল চামচ, আদা বাটা এক টেবিল চামচ, রসুন বাটা ২ চা-চামচ, তেল আধা কাপ, ঘি ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, এলাচি, দারুচিনি কয়েকটা, কাঁচা মরিচ ৮-১০টা, পানি ৭ কাপ এবং কেওড়া ৩ টেবিল চামচ।

এবার শুধু বিরিয়ানি রান্না করতে হবে। এক কেজি মাংস সব ধরনের মসলা দিয়ে মেখে রাখুন আধা ঘণ্টা। তারপর তা ভাজতে হবে। চুলায় তেল নিয়ে তাতে পেঁয়াজ দিন। কিছুটা লাল হয়ে এলে মাংস ঢেলে দিন। কিছুক্ষণ কষে নিয়ে পানি দিয়ে ঢেকে দিন। এভাবে সেদ্ধ করতে হবে মাংস। পানি শুকিয়ে এলে নামিয়ে ফেলুন।

এবার পোলাওয়ের চালের প্রস্তুতি। যে মসলাগুলোর কথা উল্লেখ রয়েছে তা সব ৭ কাপ পানিতে ফুটিয়ে নিন। পানি ফুটন্ত থাকা অবস্থায় তাতে চাল ঢেলে দিন। পানি যখন শুকিয়ে আসবে তখনই তাতে মাংস দিতে হবে। ভালোভাবে নেড়ে কাঁচা মরিচ দিয়ে দিন। কম আঁচে কিছুক্ষণ ঢেকে রাখুন। কেওড়া জল দিয়ে নামিয়ে নিন।

এবার গরম গরম থাকতে থাকতেই খেয়ে নিতে হবে আখনি পোলাও। যাদের নিজের রান্নার প্রতি ভরসা কম কিংবা স্বাদ কতটুুকু ঠিক হলো তা নিয়ে সংশয় থাকবে, তাদের জন্য সিলেটি কোনো বন্ধুর বাড়িতে হামলা দেয়াই ঠিক হবে। আর যদি কোনোভাবেই স্থানীয় কারো বাড়িতে খাওয়ার সুযোগ না হয় তবে সিলেটি কোনো অথেনটিক খাবার হোটেলই হবে শেষ ভরসা।

Tags

Add Reviews & Rate

You must be logged in to post a comment.

Sign In ভ্রমণবন্ধু

For faster login or register use your social account.

or

Account details will be confirmed via email.

Reset Your Password